IndiaIndia
WorldWorld
Toll free number

1800 22 7979

Business hours

10am - 6pm

বাকেটলিস্ট

20 mins. read

Published in the Sunday Anandabazar Patrika(ABP) on 21 April, 2024

আচ্ছা মা, তোমার কি মনে আছে আমরা ইউএসএ ট্রিপে ক্রুজে করে কটা দেশে গিয়েছিলাম?”

আমার মেয়ে সারা কল করে আমার কাছে জানতে চেয়েছিল। ইউএসএ-এর সাথে সাথে, আমরা মেক্সিকো, জামাইকা এবং বাহামাও ঘুরেছি। "অসাধারণ! আমি এখন আমার ভ্রমণ তালিকায় আরও চারটি দেশ যোগ করতে পারি! ও জানায় আমাকে। আমি আরও কিছু জিজ্ঞাসা করার আগে, ও বিজয়ীর মতো আমাকে মেসেজ করে বলে যে, মাত্র ২০ বছর বয়সে, ও ১৬ টি রাজ্য এবং ৩০ টি দেশ ঘুরে ফেলেছে। আরও ৫০টি দেশ ভ্রমণের মাইলফলক ছুঁতে চলেছে এটা ভেবেই ও ভীষণ পুলকিত এবং কারা ১০০টি দেশে সবচেয়ে দ্রুত পৌঁছতে পারে তা দেখার জন্য ও ওর বন্ধুদের সাথে একটি বন্ধুত্বপূর্ণ প্রতিযোগিতা শুরু করেছে!

কুড়ি বছর বয়সী আমাকে মনে করতে গিয়ে, আমার মনে পড়ে যে সেই সময়ে আমার আন্তর্জাতিক ভ্রমণের সংখ্যা ছিল মাত্র একটিই দেশ, আর সেটি ছিল ভারতবর্ষ! আমার এখনও মনে আছে যে ২৩ বছর বয়সে যখন আমি থাইল্যান্ডে আমার প্রথম আন্তর্জাতিক সফরে গিয়েছিলাম তখন আমি কতটা উত্তেজিত ছিলাম। এখন, আমি আমার কাজের সুত্রে ৭৮টিরও বেশি দেশ এবং অ্যান্টার্কটিকা সহ সাতটি মহাদেশে গেছি, আমার নিজেকে একজন অভিযাত্রী বলে মনে হয়, অনেকটা কলম্বাস বা আলেকজান্ডারের মতো, যেন প্রতিটি ভ্রমণে আমি একটি নতুন গন্তব্য জয় করতে চাই। ৭৫ টিরও বেশি দেশ ভ্রমণের হীরক জয়ন্তী উদযাপন করার সময়, অবশ্যই আমার মাথায় রয়েছে কবে আমি ১০০ টিরও বেশি দেশ ভ্রমণ করব। পৃথিবী, তার অগণিত সংস্কৃতি এবং অফুরন্ত প্রাকৃতিক সৌন্দর্য নিয়ে আমাদের হাতছানি দেয় এবং প্রতিটি নতুন গন্তব্য আমাদের সামনে তুলে ধরে এক নতুন পৃথিবীর চিত্র। ভারতের রাজ্যগুলিতে ঘুরে বেড়ানো বা সারা বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন দেশ ঘুরে দেখার মধ্যে রয়েছে এক নির্মল আনন্দ যা নিজের সাথে নিজের এক অলিখিত প্রতিযোগিতা তৈরি করে। অনন্য অভিজ্ঞতা, বিভিন্ন সংস্কৃতি ও স্মৃতিতে ভরা এ হল আসলে নিজেকে খুঁজে পাওয়ার যাত্রা, যা আমাদের পৃথিবীকে বুঝতে সাহায্য করে। এই প্রতিযোগিতায়, তুলনা বা প্রতিদ্বন্দ্বিতার কোনো জায়গা নেই কারণ, শেষ পর্যন্ত, ঘুরে দেখা প্রতিটি নতুন জায়গাই আমাদের নিজস্ব গল্পকে সমৃদ্ধ করে। সত্যিকারের জয় প্রসারিত দৃষ্টিভঙ্গি, নতুন বন্ধুত্ব এবং অ্যাডভেঞ্চারের মাধ্যমে ব্যক্তিগত বিকাশের মধ্যে নিহিত থাকে। প্রতিটি নতুন গন্তব্যের অভিজ্ঞতার সাথে আমরা অন্বেষণ এবং আবিষ্কারের বিস্ময়কর প্রতিযোগিতায় একমাত্র এবং উদযাপিত চ্যাম্পিয়ন হয়ে উঠি! এটা মনে রাখবেন যে, ভীণা ওয়ার্ল্ডে আমরা আপনার ভ্রমণের স্কোর জানার জন্য একটি মজাদার এবং সহজ গেম তৈরি করেছি। শুধু প্রদত্ত কোডটি স্ক্যান করুন, ফর্মটি পূরণ করুন এবং দেখুন! আপনার কাছে আপনার নিজস্ব ব্যক্তিগত ট্র্যাভেল স্কোর থাকবে এবং আপনি বেরিয়ে পড়তে পারেন  বিশ্বের একটি দেশকে জয় করতে এক সময়ে এবং প্রতিটি ঘোরার পরে আপনার ভ্রমণের স্কোর রিফ্রেশ করতে এবং গুনে রাখতে ভুলবেন না যেন!

সমস্ত ভ্রমণপিপাসু এবং ভূ-পর্যটকদের কাছে ভ্রমণের উদগ্র বাসনা চরিথার্থ করতে ট্র্যাভেল বাকেট লিস্ট তৈরি করা ছাড়া আর ভালো উপায় কি হতে পারে! "বাকেট লিস্ট" শব্দটি সাধারণত লক্ষ্য এবং স্বপ্নের সংমিশ্রণ  বোঝাতে ব্যবহৃত হয় যা মানুষ অর্জন করার আশা রাখে। আমার জন্য তো বটেই, আমার মনে হয় আমাদের অন্যান্য আরও অনেক পাঠকের কাছেও, সেরা বাকেট লিস্টটি হল "ট্র্যাভেল বাকেট লিস্ট"। আপনার নিজস্ব ট্র্যাভেল বাকেট লিস্ট তৈরি করাটা খুবই আনন্দের এবং আপনার ভ্রমণের স্বপ্ন পূরণের প্রথম ধাপ। তালিকা প্রস্তুত হলে, প্রতিটি গন্তব্য বা অভিজ্ঞতায় টিক দেওয়ার মধ্যে দিয়ে আমরা আপনার ভ্রমণের স্বপ্নপূরণকে আরও এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যেতে পারি। আপনার নিখুঁত ট্র্যাভেল বাকেট লিস্ট তৈরি হয়, আপনার আগ্রহ, গন্তব্যগুলির উপর গবেষণা এবং স্বপ্নের অভিজ্ঞতা চিহ্নিত করার মধ্যে দিয়ে। বাস্তবসম্মত এবং আরও চ্যালেঞ্জিং এই উভয় লক্ষ্য সহ, আপনার তালিকাকে অগ্রাধিকার দিন এবং শ্রেণীবদ্ধ করুন, এবং সেগুলি অর্জনের জন্য একটি সময়সীমা স্থির করুন। আপনার অ্যাডভেঞ্চার শুরু হওয়ার সাথে সাথে প্রতিটি সাফল্যকে উদযাপন করুন এবং সময়ের সাথে সাথে আপনার ট্র্যাভেল বাকেট লিস্ট পরিমার্জিত ও বিকশিত করতে অভিজ্ঞতাগুলিকে ব্যবহার করুন।

ট্র্যাভেল বাকেট লিস্ট শুধুমাত্র গন্তব্যের একটি তালিকা নয়। আপনার ব্যক্তিগত পছন্দের উপর নির্ভর করে বিভিন্ন ধরণের বাকেট লিস্ট থাকতে পারে। আপনি ২৫/৫০/১০০ টি দেশ ঘুরে দেখতে পারেন, সাতটি মহাদেশে পা রাখতে পারেন, বিশ্বের সাতটি আশ্চর্য দেখতে পারেন বা একই জায়গায় চারটি ঋতুর অভিজ্ঞতা নিতে পারেন। একজন প্রকৃতি প্রেমী হিসাবে, আপনার বাকেট লিস্টে প্রকৃতির নানান অলৌকিক ঘটনা যেমন মধ্যরাতের  সূর্য, নর্দান লাইটস, চেরি ব্লসম, শরৎকালে পাতা ঝরার মরশুমের রং দেখে আশ্চর্য হওয়া বা শীতের দেশে বরফের মধ্যে গড়াগড়ি খাওয়ার মতো ইচ্ছার তালিকা থাকতে পারে। আপনি আপনার জীবন ও তার বিশেষ মুহুর্তগুলি যেমন আপনার মাইলস্টোন জন্মদিন, বিবাহবার্ষিকী, বিবাহ, বেবিমুন, গ্র্যাজুয়েশন, স্কুলের পুনর্মিলন এবং এমন আরও অনেক কিছু উদযাপন করার পরিকল্পনা করতে পারেন।

অথবা হতে পারে আপনি একজন অ্যাড্রেনালিন জাঙ্কি এবং এক্সট্রিম স্পোর্টসে আগ্রহী তাই সারা বিশ্ব জুড়ে স্কাইডাইভ বা স্কুবা ডাইভ বেছে নিতে চান। আপনার আগ্রহের উপর নির্ভর করে বিশ্বের নানান ধরনের থাকার জায়গা নিয়ে আপনার একটি মজার বাকেট লিস্ট হতে পারে যারমধ্যে পুল ভিলা, ওয়াটার ভিলা, গ্ল্যাম্পিং টেন্ট, সাফারি লজ, ট্রি হাউস এমনকি ক্যাসেলও  থাকতে পারে। ভোজনরসিকদের ইচ্ছা তালিকাটি কেমন হবে! এমনকি ভীণা ওয়ার্ল্ডে আমরা তাদের জন্যও হলিডেগুলি ডিজাইন করেছি যারা প্রতিটি স্থানীয় খাবারের স্বাদ নিতে চান, স্থানীয় খাবার সম্পর্কে ধারণা করতে চান, মিশেলিন স্টার রেস্তোরাঁ উপভোগ করতে চান বা সারা বিশ্বের সেরা স্ট্রিট ফুড খেতে চান। কেউ কেউ আরও এক ধাপ এগিয়ে গিয়ে রান্নার পাঠও নেন। আসলে, একটি দেশের শ্রেষ্ঠ পরিচয় অবশ্যই তাদের খাদ্যাভ্যাস এবং স্থানীয় খাবারের মাধ্যমেই প্রকাশিত হয়! প্রকৃতপক্ষে, ভারত ও তার বিভিন্ন রাজ্যের দিকে একবার নজর দিলেই দেখা যাবে যে সারা দেশ জুড়ে বিভিন্ন সুস্বাদু খাবারের সম্ভার ছড়িয়ে রয়েছে। ইন্দোরের সারাফা বাজার, অমৃতসরের ছোলে বাটুরে থেকে রাজস্থানের লালমাস বা পিয়াজ কি কচুরি, খাবারের প্রতি ভালবাসার জন্য ভ্রমণ সত্যিই উন্মুখ হওয়ার মতনই ঘটনা। আর আপনি যদি গ্রুপ ট্যুরে ভ্রমণ করতে পছন্দ করেন এবং ভীণা ওয়ার্ল্ডের ট্যুর ম্যানেজারদের তত্ত্বাবধানে থাকার সময় অন্যান্য সহযাত্রীদের সঙ্গ উপভোগ করেন, তাহলে আপনি অবশ্যই স্থানীয় খাবারের স্বাদ পাবেন এবং এমনকি ট্যুর শেষ হয়ে যাবার পরেও সেখানে থেকে গিয়ে আরও কিছুদিন ছুটি কাটানোর সিধান্ত নিয়ে  বানিয়ে ফেলতে পারেন আপনার নিজস্ব ফুড ট্যুর। ক্রীড়াপ্রেমীদের কাছে তাদের প্রিয় খেলা দেখার জন্য সফরকারী দেশগুলির একটি নিজস্ব তালিকা থাকবেই৷ ফুটবল মরসুমের পাশাপাশি, গ্র্যান্ড প্রিক্স, টেনিস, ক্রিকেট এমনকি ম্যারাথনও, আগামী এক, দুই বা পাঁচ বছরের জন্য পরিকল্পনা করলে আপনি নিশ্চিতভাবে আপনার বাকেট লিস্টে টিক চিহ্নটি দেখতে পাবেন। তরুণদের মধ্যে একটি ট্রেন্ডিং বাকেট লিস্ট আইটেম হল সারা বিশ্ব জুড়ে সঙ্গীত উৎসব।

সীমাহীন সম্ভাবনা, আর  আমরা এই আলোচনায় অনির্দিষ্টকালের জন্য ডুবে যেতে পারি। যাইহোক, এই লেখাটি লিখতে লিখতে, আমি এই বছরের জন্য ইতিমধ্যেই আমার নিজস্ব বাকেট লিস্ট তৈরি করে ফেলেছি। ২০২৩ সালে আমার বাকেট লিস্টে থাকা বেশিরভাগ আইটেমগুলিকেই আমি টিক দিতে পেরেছি তবে কিছু বাকি আছে যেগুলো এবছরের মধ্যে হয়ে যাবার আশা রাখছি।

ভীণা ওয়ার্ল্ড প্রোডাক্ট টিম আপনার ভ্রমণের স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করার জন্য এক যাত্রা শুরু করেছে। এই বছর আপনাদের সামনে কিছু মনোমুগ্ধকর গন্তব্যস্থল উপস্থাপন করতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। এই ফেব্রুয়ারিতে সপ্তম মহাদেশ অ্যান্টার্কটিকা জয় করে আসা আমাদের সমস্ত অতিথিদের নিয়ে আমরা অত্যন্ত খুশি। মার্চ মাসে, আমরা গেছিলাম দক্ষিণ আমেরিকার সবুজে ঘেরা রেইনফরেস্ট এবং প্রাণবন্ত সংস্কৃতি পরিদর্শন করতে। ২০২৪ সালে যে সমস্ত গন্তব্যস্থলগুলি আপনাদের জন্য অপেক্ষা করে আছে সেগুলি হল ওমান, কাতার, সৌদি আরব এবং আরও অনেক দেশ। যারা কোনো একটি গন্তব্যস্থলের বিস্ময়কর পরিবেশে নিজেদের ব্যপ্ত রেখে অবসর সময় কাটাতে চান তাদের জন্য আমরা ক্যালিফোর্নিয়ায় একটি মজাদার ট্রিপ আনছি। আর সমস্ত সাহসী অভিযাত্রীদের জন্য আর্কটিক অঞ্চলে আমাদের এক নতুন ক্রুজ সফর চালু হয়েছে যেখানে পাবেন মেরু ভালুককে এক ঝলক দেখার সুযোগ। এই সফর ইতিমধ্যেই সম্পূর্ণ বিক্রি হয়ে গেছে। আর যারা আমাদের মাতৃভূমি ঘুরে দেখতে চান তাদের জন্য এখানে রয়েছে কিছু অনুপ্রেরণা। আপনি ঘুরে দেখতে পারেন অন্ধ্রপ্রদেশের নির্মল সুন্দর ভাইজ্যাগ এবং আরাকু ভ্যালি, রামোজি ফিল্ম সিটি, হায়দ্রাবাদ এবং শ্রী সাইলামের সুবর্ণ সমন্বয়, রাজস্থানের বুন্দি, ভানগড়, কিশানগড়, কোটা নতুন করে আবিষ্কার  করতে পারেন, অথবা হরিদ্বার, ঋষিকেশ, পানিপথ, কুরুক্ষেত্র অথবা লখনউ, বারাণসী, অযোধ্যা, প্রয়াগরাজ এবং শ্রাবস্তী ঘুরে আমাদের পৌরাণিক কাহিনীকে পুনরুজ্জীবিত করে তুলতে পারেন। ।

সুতরাং, একটি দারুন বছর সামনে অপেক্ষা করছে! তা সে স্বপ্নের গন্তব্য, একটি সাংস্কৃতিক অভিযান, বা একটি দুঃসাহসিক অনুসন্ধান যাই হোক না কেন, আপনার ভ্রমণের আকাঙ্খাগুলিকে লিখে রাখুন আর সেই বাকেট লিস্টটি যখন ভীণা ওয়ার্ল্ডের সাথে এক অবিস্মরণীয় অভিজ্ঞতার সফরে মিলেমিশে একাকার হয়ে যাবে তখন আপনি একটা ম্যাজিকের সাক্ষী হয়ে থাকবেন।


হায় রে! এইটা আমি জানতাম না...!

Know the Unknown

আজ পর্যন্ত আমরা বিশ্বের মধ্যে বেশ লম্বা, বেশ বড, অত্যন্ত ছোট্ট, উঁচা... এরকম কত জায়গাতে দেখি? বিশ্বের টালেস্ট অর্থাৎ সবার উঁচা বিল্ডিং দেখার সুযোগ উপলব্ধ আছে এখান থেকে কেবল আডাই ঘন্টার অন্তরে, দুবাইতে! লোক হো, অর্ধেক মাইলের বেশি মানে 828 মিটের্স উঁচা আকাশে খাড়া বুর্জ খলিফা ইমারত আইফেল টাওয়ারের তিনগুন ও আমেরিকায় এম্পাযার স্টেট বিল্ডিংর দুইগুন উঁচা আছে |যে সময়ে আকাশ অভ্রহীন, আমরা বুর্জ খলিফা 95 কিমি দুরেও দেখতে পারি |

দুবাই আজ যে চক্ষু ধাঁধানো অগ্রগতি অর্জন করেছে তা বুর্জ খলিফা নির্মানের মাধ্যমে শুরু হয়েছিল | এই বুর্জ খলিফার কাছাকাছি পরে ডাউন টাউন দুবাই গড়ে উঠেছে |2004 সালে শুরু এর কাজ 2009 মধ্যে পূর্ণ হলো আর এই অট্টালিকা লোকজনের জন্য 2010 মধ্যে উন্মুক্ত করা হয় |প্রায় এক লক্ষ হাতির ওজনের সমান ক্রান্ক্রীট বুর্জ খলিফা তৈরি করার জন্য ব্যবহৃত হয়েছিল | তার মধ্যে রেসিডেন্সেস, অফিসেস ও হোটেল আছে আর তাকে 160 তলা, 2909 সিন্ডি, 57 লিফ্টস আর 8 এস্কেলেটের্স আছে | বীণা ওয়ার্ল্ডের প্রায় দুবাই সফরে আমরা বুর্জ খলিফার 124 তম তলে স্থিত অব্সের্ভেশান (পর্যবেক্ষণ) ডেস্ক দেখছিল | এখানের লিফটের বেগ এতো বেশি যে আমরা 124 তম তলের উপর এক মিনিট সময়ের মধ্যেই পৌঁছে যায় | বলা যায়, বুর্জ খলিফা তৈরি করার জন্য় 1.5 বিলিয়ান ইউএস ডলর (US Dollers) এতো বেশি টাকা খরচ হয়েছে |এখন আমাদের মনে প্রশ্ন উপস্থিত যে এই বৃহদ অট্টালিকার নাম বুর্জ খলিফা কেমন রাখলেন? শুনুন, ‘খলিফা’ নাম আছে ইউএই (USE) র আগেকার রাষ্ট্রপতি শেখ খলিফা বিন ঝাএদ অল নাহ্যা ইনির নামে, যিনি এ ভবন নির্মানের জন্য প্রচুর অর্থ সাহায্য করলেন | আর এক আশ্চর্য কথা যে আরেবিক ভাষায় বুর্জ মানে টাওয়ার | দুবাই মোল থেকে প্রবেশ আসার বুর্জ খলিফা মধ্যে যাবার জন্য একটি মেট্রোও আছে |এদের আর একটি বড় আকর্ষন যে বুর্জ খলিফার বাইরের দুবাই ফাউন্টন আর সেখানের উজ্জ্বল সাউন্ড এন্ড লাইট শো |

তারপর, চলো, ব্যাগ গুছিয়ে বের হও, বুর্জ খলিফা দেখার জন্য দুবাইতে !


কি খাবেন, কি ভাবে খাবেন?

kaybaikhau bengali

গত কিছু বছর ধরে জাপানিজ ফুড সকল বিশ্বে বিখ্যাত হয়ে উঠেছে | তার ট্রেডিং হয়েছে আর সেখানে বিশেষ করে ‘সুশি’ এই খাবারটি আমাদের অনেকের প্রিয় হয়ে গেছে | চলুন, আজ আমরা ‘সুশি’ সম্পর্কে  কিছু জেনে নেওয়া যাক | জাপানিজ ভাসের মধ্যে সুশি মানে একটি টক স্বাদের একটি খাবার | এরকম বোলা যায়, কাঁচা সামুদ্রিক খাবার ও সবজি ভিনেগার্ড রাইস ও সী বিড় মধ্যে মোড় করে তৈরি হওয়ার এই খাবারের মডার্ন ভার্জন তৈরি করলেন ১৮২৪ সালে হানায়া যহেই নামে একটি ব্যক্তি দ্বারা | গত অনেক বছরে ইকিগাই, বাবি সাবি, শিন্রিন যকু এরকম কতক জাপানিজ ফিলোসফিজ বিশ্ব কে অনুপ্রাণিত করেছে | সে রকমই জাপানিজ রান্না তৈরি করার ও খাওয়ার একটি বিশেষ ফিলোসফি (দর্শন) আছে | এখানে যে সেফ সুশি তৈরি করে, সে খুব শান্ত মনে ও তার হৃদয় ঢেলে তৈরি করে | এটা এক ধরনের থেরাপির মতো | সুশি এ কেবল খাবার নয়, সে তারমধ্যে উপস্থিত সামুদ্রিক খাবার দ্বারা আমাদেরকে বছরের সে সে ঋতুর পরিচয় করে দেয় |কেউ এক সময় সুশিতে চাল সী ফুডকে সংরক্ষনের জন্য় ব্যবহৃত হয় আর চাল খায়নি |আজকের দিনে পুরা সুশি চালের সহ স্বাদ নিয়ে খাওয়া হয় | এই চলে ভিনেগার থাকে | সুশি খাবার সময় বাইরের ভাগ সোয়া সস মধ্যে ডুবিয়ে খাওয়ার পদ্ধতি আছে | জাপানে সুশি খাওয়ার সময় সোয়া সসের অতিরিক্ত ব্যবহার অথবা এটি ব্যর্থ নষ্ট করা অভদ্র বলে বিবেচিত হয় | আমরা জানি জাপানিজ খাদ্য বেশিরভাগই চপস্টিক নিয়ে খাওয়া হয় | কিন্তু জাপানে সুশির কিছু প্রকার প্রচলিতভাবে হাত দিয়ে খাওয়ার পদ্ধতি আছে | আপনি যদি সুশি পছন্দ করেন, তাহলে সেটা যে তৈরি করে সে সেফকে প্রশংসা হিসেবে সাকে নাম বাইন অফার করবেন এবম সেফের সাথে বাইনের একটি শটও নিতে অপেক্ষিত | বীণা ওয়ার্ল্ড সবসময় ভিন্ন ভিন্ন দেশে  এরকম খাঁটি উপাদান আপনাদের টুর খাদ্যে অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা করে |

তাই তারপর তোমাদের জাপানিজ সুশি জাপানে গিয়ে খাওয়ার চেষ্টা কখন করবে? সেলিব্রেট ফুড, সেলিব্রেট লাইফ ! চিয়ার্স |


ভীণা ওয়ার্ল্ড  ট্রাভেল মিশন

travelmission bengali

আমরা অনেকেই একই জীবনে বিশ্বের ১০০টি দেশ ও ভারতের ২৫টি রাজ্য দেখতে চাই | কিন্তু কেমন? বীণা ওয়ার্ল্ড আছে তো! কোনো চিন্তা নেই | মার্চ মাসে বীণা ওয়ার্ল্ডর একটি আফলাতুন (আশ্চর্য) টুর (সফর) যাকে ফিরে এসেছিল | সফর ছিল ৫০টি দিনের! যেখানে এক ধাক্কায় দেখা গেল নয়টি রাজ্যকে | এ সফর গুজরাতের দ্বারকা থেকে শুরু হয়ে শেষ হলো কলকাতার দিঘা মধ্যে | এর নাম আচ্ছে “দ গ্রেট ইন্ডিয়ান পেনিনসুলা” | দ্বারকা, দিব, সুরত, মুম্বাই, মুরুড়, গণপতিপুলে, গোয়া, গোকর্ণ, উডিপি, কোচিন, থিরুঅনন্তপুরম, কন্যাকুমারী, রামেশ্বর, পন্ডিচেরি, চেন্নাই, বিজয়বাডা, বায়ঝাক, পুরি, দিঘা, সুন্দরবন. কলকাতা... এরকম এ টুর ! পড়তে গিয়েও ক্লান্ত হলো না? কিন্তু পর্যটকরা এসেছিলেন এই টুরে, পঞ্চাস দিনের ! আরেবিয়ান সাগর ও বে অফ বেঙ্গাল এনার সাথেই এই সফর পূর্ণ হয় |আমাদের বিশাল ভারত দেখার জন্য় আমাদের কাছে তিন রোড় ট্রিপস (রাস্তা ভ্রমন) আছে | তাদের মধ্যে আমরা ২০২২ সালের ১২ নভেম্বরে  কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী পর্যন্ত প্রথম সফর করেছিলাম|চল্লিশ দিনের এই সফরটি একটি দুর্দান্ত সফল ছিল, যাতে ১১টি রাজ্য এবম ৩টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল পরিদর্শন হলো | এখন এ বছর সফর আছে সপ্তেম্বরে | তৃতীয়টি সড়ক সফর হলো যা মধ্যে পর্যটক ভারতের মধ্য দিয়ে পশ্চিম থেকে পূর্বে যায় |গুজরাত থেকে গুয়াহাটি | এ টুর আছে দীপাবলীর পর |তাই, লোক হো, ভারতকে দেখো নর্থ থেকে সাউথ পর্যন্ত চাল্লিস দিনের মধ্যে অথবা বেস্ট থেকে ইঅস্ট দেখো ত্রিশটি দিনের মধ্যে অথবা গ্রেট পেনিনসুলা ৫০টি দিনের মধ্যে | বলেছেন কিনা, আমরা আছি | আসুন, আমাদের অবিশ্বাস্য় ভারতের প্রতিটি  রাজ্যে ঘুরে দেখি আর বিশ্বের একাধিক আশ্চর্যজনক দেশের উপর পর্যটনের শিক্কা রেখে যাই | ‘কদম কদম বঢায়ে যা..’ বলে পর্যটনের মিশন পূরণ করি |


নববর্ষ .... নব দেশ....

কিছু মাস আগে আমরা ইতালির ছোট ছোট গ্রামে ঘোরাঘুরি শুরু করি | সারা জীবন বড শহুর ঘুরেছি, এখন আজব কিছু শহর বা সুন্দর গ্রাম দেখার উন্মাদে মাথা ভরে যায় | এরকম জায়গাগুলি বীণা ওয়ার্ল্ডের টুর প্রোগ্রামের মাধ্যমে আমরা দেখাতে পারি, অন্তর্ভুক্ত করতে পারি, আমরা টা করছি | আর সেজন্য আমরা চার জন মানে আমি, সুধীর, সুনিলা, নীল, বিভিন্ন জায়গায় ভারতে বা বিদেশে সময় পেলেই ভ্রমন করি |এখন পর্যটনের দৃষ্টিতে বিশ্ব আগের মতন ঠিক হয়েছে | সব জায়গায় পর্যটকদের ভিড় |গত বছরের জুলাইতে আমরা আবু ধাবিতে, অগাস্টে গ্রীসমধ্যে, অক্টোবার মধ্যে ভিয়েতনামে, নভেম্বরে স্পেন-পর্তুগালে ছিলাম |আমাদের প্রতিটি ট্রিপ পনের দিনের. কারণ আমরা সবকিছু নতুন দৃষ্টিতে  দেখতে চাই |এ জন্যই আমরা আবু ধাবির সফরে সবার আগে সী ওয়ার্ল্ড এনেছেন আর একটি অনন্য জলের নিচের দুনিয়া পর্যটকদের খোলা হয়েছিলো | ভিয়েতনামে হইয়ান মধ্যে বাস্কেট বোট রাইড় আর সন্ধ্যা সময়ের ল্যাটার্ন বোট রাইড় এই দুই পরবর্তী অভিজ্ঞতা |দানাং মধ্যে মার্বেল পর্বত, হো-চি-মিন্হ কে কুচি টানেল্স এবম মেকং ডেল্টা – এ দুই অভিজ্ঞতা বর্ণনা করা কঠিন |গ্রীসমধ্যে অল অফ গ্রীস এ পনের দিনের সফর, স্পেনমধ্যে দারুন সুন্দর মিহাস ও বার্সেলোনাতে মন্টসেরা মধ্যে ...| এরকম অনেক কিছু জায়াগাটা এই সফরে অনর্ভুক্ত হলো, জরুরি বদলের সাথে |বীণা ওয়ার্ল্ডের মুখ্য প্রোডাক্ট ও নেটবর্কিং অফিসার সুনীলা পাটিল ওমান দেশে আর বাকু উঝবেকিস্তানের স্থানে গেল আর সে সফর শুরু হলো | কতার ও সৌদি আরেবিয়া সফরই এরমধ্যে অন্তর্ভুক্ত হলো | মিডল ইস্টার্ন কন্ট্রিজ যাকে আমরা মরুভূমির দেশ বলে, পর্যটন ক্ষেত্রে তাদের যে অগ্রগতি হয়েছে তা দেখে আমরা বিস্মিত | দুবাই, আবুধাবি প্রথম থেকেই আর সৌদি আরেবিয়া, ওমান, কতার সফরগুলি নতুনভাবে বিশ্বের পর্যটন মানচিত্রে এসেছে | বীণা ওয়ার্ল্ড প্রস্তুত আছে আমাদের ভারতীয় পর্যটকদেরকে বিশ্বের প্রতিটি কোনে নিয়ে যেতে | তারপর, গত বছর ভালো ছিল, এই পয়লা বৈশাখ থেকে শুরু নতুন বর্ষের অনেক সংকল্প  আপনার মনে থাকবে | খুব বড আর শীঘ্রই ফুস্স হয়ে এরকম সংকল্প করিও না|কিন্তু এ বছর কোন পাঁচটি বই পডতে হবে? কোন প্রেরনামূলক podcost সিরিজ নিয়মিত শুনবে? কোন প্রকারের ব্যায়াম পুরো বছর করবে? যত ছোটই হোক না কেন, প্রতিদিন কোন প্রার্থনা করা উচিত? আমাদের অদ্বিতীয় ভারতের কোন রাজ্য ঘুরে বেডাবে? আর এই সুন্দর বিশ্বের কোন দেশে পা রাখবে? আসুন, এরকম কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া যাক, নিগ্রহের সাথে পূর্ণ করার জন্য় হৃদয়ে নিয়ে যাই |চলো, উত্সাহের সাথে আগত প্রতিটি আসন্ন দিনের জন্য় অপেক্ষা করি | লেটস লুক ফরওয়ার্ড টু নিউ ইআর বিথ রিনিউড় ভিগার |


সাবধান ! ভিসাবধান

savdhan bengali

একটি জিনিসের নামেই একটি হৃত্পিন্ড ভয়ে কাতর হয়, সেরকম ভিসা নিয়ে | ভিসা আবেদন থেকে ভিসা পাওয়া পর্যন্ত ভয়ানক টেনশনের সময় | বিদেশে যাবার সময়, আপনি যে দেশে যাচ্ছেন সেই দেশের পাসপোর্টে সম্মতি মানে একটি ভিসা প্রয়োজন | এই ভিসা স্ট্যাম্প অথবা স্টিকারের রূপে আছে অথবা পেপার ভিসা আছে | কিছু দেশ আমাদের ভারতীয় নাগরিকদের জন্য ভিসা ফ্রি করেছে আর কিছু দেশের মধ্যে ভিসা অন আরায়্ভাল (আগমনের পর ভিসা)  আছে |বর্তমানে গ্রীষ্মকালীন ছুটির ট্যুরের বুকিং পুরোদমে চলছে | তারপর ভিসা সম্বন্ধীয় তথ্য জেনে নেই | ইউএসএ দেশের ভিসা আপয়েন্টমেন্টস্ ২০২৫ এর পাওয়া যায় | ইউএসএ কন্সুলেট কভিড়ের কারণে বাকলোগ পূরণ করতে ছুটির দিনেও কাজ করছে | যাতে আমাদের মতো একজন সাধারণ পর্যটক ভিসা আপয়েন্টমেন্ট পেতে পারেন | বীণা ওয়ার্ল্ডে বর্তমানে যাদের বৈধ USA ভিসা আছে, তাদের জন্য বুকিং রয়েছে অথবা যে পর্যটক 2024 সালের অপায়ন্টমেন্ট (নিয়োগ) পেয়েছেন |অস্ট্রেলিয়া বর্তমানে ভারতের উপর খুশ আছে |তারা বেশিরভাগ পর্যটককে ৩ বছরের ভিসা দেয় | তারজন্য অস্ট্রেলিয়ার মতো বিশাল খন্ড আমরা দুই বা তিন বার যেতে দেখতে পারি | অস্ট্রেলিয়ার সাথে নিউঝিল্যান্ড পর্যটকদের প্রিয় কম্বিনেশন (সংমিশ্রণ) কিন্তু নিউঝিলান্ড ভিসা প্রক্রিয়াকে একালে দুই থেকে আড়াই মাস লাগছে | সেকারণে, এ টুর যে চায় তারা সাড়ে তিনটে থেকে চার মাস আগে বুকিং করা উচিত | তাই তোমাদের ভিসা প্রক্রিয়াকরণ বীণা ওয়ার্ল্ড টিমকে এটা সহজ হবে আর তোমাদেরও কোন টেনশন থাকবে না | জাপান, কোরিয়া, তায়বান টুর্স বর্তমানে পর্যটকদের শীর্ষ তালিকায় | এই দেশ ভিসার সম্বন্ধে আমাদের দিকে সহৃদয়তায় দেখেছেন | তারপর সেখানে ভিসা এ সমস্যা সম্ভবতঃ নেই | পরন্তু, জনপ্রিয়তার জন্য এই সফরগুলির আসন অনেক আগেই পূর্ণ হয়ে যায়, এই মনে রাখবেন | ফেব্রুয়ারী মধ্যে আন্টার্কটিকাকে বীণা ওয়ার্ল্ডের দুই টুর্স যাকে ফিরে এলাম, তারজন্য আর্জেন্টিনার ভিসা আবশ্যক |সাউথ আমেরিকার টুর মার্চ মাসে গিয়ে এলাম, যেখানে পাঁচটি দেশের ভিসা করতে হবে, তাকে অনেক সময় লাগে | এখনো, পরের সফর সপ্তেম্বার মধ্যে আছে, তার বুকিং কিমান ছয় মাস আগে মানে এই মুহুর্তে করা উচিত |সাউথ আফ্রিকা মানে আফ্রিকা খন্ডে পা রাখা হয় তো অন্তত চার মাসের অগ্রিম বুকিং দরকার |গত বছর ইউরোপের ভিসা প্রাপ্ত করা এই খুব বৃহদ সমস্যা ছিলো |কাউন্স্যুলেট মধ্যে জনশক্তির ঘাটতি ও প্রচুর চাহিদা এর কারণে সবাই ন ভূতো: এরকম স্থিতি অনুভব করেছিল, আমরাও | অর্থাৎ, ভিসার প্রচুর সমস্যাগুলিকে আমরা খুবই ধৈয্য জুটে সামলাতে পারলো আর এপ্রিল থেকে ডিসেম্বর ২০২৩ এই নয় মাসে বারো হাজার পর্যটককে সাফল্যের সাথে ইউরোপ টুর করিয়ে দিলাম | এ সালে আমরা ও ইউরোপে যাওয়া পর্যটক আরও সতর্ক হয়েছিল | এ পর্যন্ত যাদের বুকিং হয়েছে, তাদের বেশির ভাগ পর্যটক ভিসা পেয়েছেন আর তারা চিন্তামুক্ত হয়েছে |এর পর ইউরোপে যাওয়া পর্যটকদের অবিলম্বে বুকিং করা উচিত এবম UK ও Shengen ভিসার জন্য় প্রস্তুতি করা দরকার | আপনার ভিসা পান এবম ইউরোপ টুরের প্যাকিং শুরু করুন |

আপনাদের পর্যটনের মজার গল্প জানতে দিন |

April 20, 2024

Author

Sunila Patil
Sunila Patil

Sunila Patil, the founder and Chief Product Officer at Veena World, holds a master's degree in physiotherapy. She proudly served as India's first and only Aussie Specialist Ambassador, bringing her extensive expertise to the realm of travel. With a remarkable journey, she has explored all seven continents, including Antarctica, spanning over 80 countries. Here's sharing the best moments from her extensive travels. Through her insightful writing, she gives readers a fascinating look into her experiences.

More Blogs by Sunila Patil

Post your Comment

Please let us know your thoughts on this story by leaving a comment.

Looking for something?

Embark on an incredible journey with Veena World as we discover and share our extraordinary experiences.

Balloon
Arrow
Arrow

Request Call Back

Tell us a little about yourself and we will get back to you

+91

Our Offices

Coming Soon

Located across the country, ready to assist in planning & booking your perfect vacation.

Locate nearest Veena World

Listen to our Travel Stories

Veena World tour reviews

What are you waiting for? Chalo Bag Bharo Nikal Pado!

Scroll to Top